Breaking News
Loading...
Wednesday, November 2, 2016

হিলারি ডায়ানে রডহ্যাম ক্লিনটন। আসন্ন মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্র্যাট দলীয় প্রার্থী। দলীয় মনোনয়ন পেয়ে এরইমধ্যে ইতিহাস গড়েছেন তিনি। ছাত্রজীবন থেকে রাজনীতি করা সাবেক এই ফার্স্ট লেডি দায়িত্ব পালন করেছেন, নিউ ইয়র্কের সিনেটর ও মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে।
১৯৪৭ সালের ২৬ অক্টোবর শিকাগোর ইলিনয়েসের পার্ক রিজে জন্মগ্রহন করেন হিলারি। বাবা হিউ এলসওয়ার্থ রডহ্যাম ও মা ডরোথি এমা হাওয়েল রডহ্যামের বড় সন্তান তিনি। মেইন ইস্ট ও মেইন সাউথ থেকে হাইস্কুল,ওয়েলসলি কলেজ থেকে ১৯৬৯ সালে অনার্স ও ১৯৭৩ ইয়েল’ল থেকে জেডি ডিগ্রি লাভ করেন হিলারি। কলেজে অধ্যয়নের সময় সক্রিয় ছিলেন ছাত্র রাজনীতিতে।

লেখাপড়া শেষ করেই যোগ দেন কংগ্রেশনাল লিগ্যাল কাউন্সিলে। ১৯৭৪ সালে সে সময়ের মার্কিন প্রেসিডেন্ট রিচার্ড নিক্সনের অভিশংসন তদন্ত কমিটির সদস্য নির্বাচিত হন হিলারি। ওয়াটারগেট কেলেঙ্কারির ঘটনায় হাউজ অব রিপ্রেজেনটেটিভ জুডিসিয়ারি কমিটিতে পরামর্শকের ভূমিকাও পালন করেন। প্রেসিডেন্ট নিক্সনের পদত্যাগের পর আরকান্সাস ইউনিভার্সিটিতে যোগ দেন হিলারি। সেখানে আলাপ হয় বিল ক্লিনটনের সঙ্গে। ১৯৭৫ সালে ১১ অক্টোবর বিয়ে করেন তারা।

১৯৭৭ সালে ল’ফার্ম প্রতিষ্ঠা করেন হিলারি। গভর্নর স্বামীর কারণে আরকান্সাসের ফার্স্ট লেডি হিসেবে এডুকেশনাল স্ট্যান্ডার্ড কমিটির চেয়ারম্যান পদে থাকার পাশাপাশি রোজ ল’ফার্ম, স্কুল ও বিভিন্ন কর্পোরেট বোর্ডের দায়িত্ব পালন করেন তিনি। প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটনের দুই মেয়াদের ফার্স্ট লেডি হিলারি ২ হাজার সালে প্রথম নারী হিসেবে নিউইয়র্ক থেকে সিনেট সদস্য নির্বাচিত হন।

২০০৭ সালে তিনি যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম নারী প্রেসিডেন্ট হওয়ার দৌঁড়ে নিজের নাম ঘোষণা করেন। কিন্তু ডেলিগেটদের ভোটে বারাক ওবামার স্পষ্ট জয়লাভের ফলে সরে দাঁড়ান। প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার প্রথম মেয়াদে দেশের ৬৭তম পররাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন হিলারি।

২০১৫ সালে আবারও প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের পরিকল্পনা আনুষ্ঠানিকভাবে জানান হিলারি। নিজ দলীয় প্রার্থী বার্নি স্যান্ডার্সকে পরাজিত করে ডেমোক্র্যাট দলের চূড়ান্ত কনভেনশনে প্রার্থী নির্বাচিত হন। ৮ নভেম্বর নির্বাচিত হলে যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে প্রথম নারী প্রেসিডেন্ট হবেন হিলারি।
Next
This is the most recent post.
Older Post

0 comments:

Post a Comment